দৈনিক আজকের বাংলাদেশ

সত্য প্রকাশে আপোষহীণ…

ওসমান পরিবারের সদস্যদের নামে নামকরণে প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞ স্বপ্নীল দাশ নিলয়

এমডি অভিঃ

নারায়ণগঞ্জের ২টি আঞ্চলিক মহাসড়ক ও নির্মাণাধীন ৩য় শীতলক্ষ্যা সেতু ঐতিহ্যবাহী ওসমান পরিবারের প্রয়াত তিন সদস্যের নামে নামকরণ করায় নারায়ণগঞ্জ মহানগর জাতীয় পার্টির সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব ও নাসিক কাউন্সিলর জননেতা আফজাল হোসেনের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের কে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জের আলোচিত তরুণ জাতীয় পার্টি নেতা ও ভাষা সৈনিক নাগিনা জোহা সমাজ কল্যাণ পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান প্রবাসী প্রকৌশলী স্বপ্নীল দাশ নিলয়। সেই সাথে ওসমান পরিবারের সকল সদস্য সহ নারায়ণগঞ্জবাসীকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন তিনি।

প্রসঙ্গতঃ গত ২৫ মে, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা এক প্রজ্ঞাপনে নারায়ণগঞ্জের চাষাড়া থেকে সাইনবোর্ড পর্যন্ত আঞ্চলিক মহাসড়কের নামকরণ ‘ একেএম সামসুজ্জোহা সড়ক’ ও খানপুর থেকে ইপিজেড পর্যন্ত আঞ্চলিক মহাসড়কের নাম ‘বেগম নাগিনা জোহা সড়ক’ এবং নির্মাণাধীন ৩য় শীতলক্ষ্যা সেতুর নামকরণ ‘বীর মুক্তিযোদ্ধা একেএম নাসিম ওসমান সেতু’ ঘোষণা করা হয়। তারা প্রত্যেকেই ওসমান পরিবারের অন্যতম প্রয়াত সদস্য।

প্রবাস থেকে পাঠানো এক বার্তায় স্বপ্নীল দাশ নিলয় আরও বলেন,

“ঐতিহ্যবাহী ওসমান পরিবার দীর্ঘ কয়েক যুগ ধরে নারায়ণগঞ্জকে নেতৃত্ব দিয়ে আসছে।নারায়ণগঞ্জবাসীর সুখে-দুঃখে সর্বদা পাশে থাকে ওসমান পরিবার। নারায়ণগঞ্জের সামাজিক, রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক প্রতিটি সেক্টরের উন্নয়নে ওসমান পরিবারের অবদান সবচেয়ে বেশি। এছাড়াও দেশের জন্য ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে মহান মুক্তিযুদ্ধ সহ প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে অপরিসীম ভূমিকা রেখেছে ওসমান পরিবারের সদস্যরা।

তাছাড়া আমার নেতা, নারায়ণগঞ্জ- ৫ আসনের বহুবার নির্বাচিত জননন্দিত সাংসদ প্রয়াত বীর মুক্তিযোদ্ধা একেএম নাসিম ওসমান নারায়ণগঞ্জবাসীর কল্যাণে আজীবন কাজ করে গিয়েছেন। তার মতো নেতা আমরা আর কখনো ফিরে পাবো না। আমাদের বন্দরবাসী অর্থাৎ নদীর পূর্বপারের জনগনের দুঃখ-কষ্ট লাঘবে বন্দর এবং ওপারের শহরবাসীকে এক করার জন্য তিনিই সর্বপ্রথম ৩য় শীতলক্ষ্যা সেতু নির্মাণের স্বপ্ন দেখেছিলেন। নিয়েছিলেন উদ্যোগ। পরবর্তীতে তার অকাল মৃত্যুর পর তারই ছোট ভাই, বীর মুক্তিযোদ্ধা একেএম সেলিম ওসমান মহোদয় সাংসদ হয়ে এই সেতু নির্মাণে নিরলস কাজ করে আজকে তা বাস্তবে রূপ এনে দিয়েছেন। তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কে আরও একবার ধন্যবাদ জানাই কারণ তিনি মহান নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা একেএম নাসিম ওসমানের নামে ৩য় শীতলক্ষ্যা সেতুর নামকরণ করে তিনি তার দুরদর্শিতার প্রমাণ দিয়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তার এই সিদ্ধান্তে বন্দর ও শহরবাসী অত্যান্ত আনন্দিত ও উল্লসিত।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like us on Facebook