দৈনিক আজকের বাংলাদেশ

সত্য প্রকাশে আপোষহীণ…

ক্যাসিনো ব্যবসায় যুবলীগ নেতাদের সম্পৃক্ততাকে ক্ষমতাসীনদের দুর্নীতির প্রমাণ

আজকের বাংলাদেশ রিপোর্ট:

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘ঢাকায় অবৈধ ক্যাসিনো ব্যবসায় র‌্যাবের অভিযানে এখন কেঁচো খুঁড়তে সাপ বেরোচ্ছে। ঢাকার ক্যাসিনো ব্যবসায় যুবলীগ নেতাদের সম্পৃক্ততাকে ক্ষমতাসীনদের দুর্নীতির প্রমাণ।’

শনিবার (২১ সেপ্টেম্বর) সকালে ছাত্রদলের নতুন নেতাদের নিয়ে শেরেবাংলা নগরে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের কবরে ফুল দিতে গিয়ে সাংবাদিকদের তিনি এ মন্তব্য করেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘সরকার আকণ্ঠ নিমজ্জিত হয়েছে দুর্নীতিতে। তাদের একেবারে উচ্চপর্যায় থেকে তৃণমূলের কর্মী পর্যন্ত দুর্নীতিতে নিমজ্জিত। তারই কিছু প্রমাণ আপনারা গত কয়েক দিন ধরে দেখছেন।

তিনি বলেন, ‘ঢাকা মহানগর থেকে শুরু করে যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলো পর্যন্ত সবখানেই তারা আজকে যে ভয়াবহ আকারে দুর্নীতিতে নিমজ্জিত হয়েছে, এটি দেশের জন্য এবং জনগণের জন্য অত্যন্ত ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি সৃষ্টি করছে।’

ক্যাসিনো ব্যবসা বিএনপির আমলেই শুরু হয়েছে বলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় ফখরুল বলেন, ‘উনাকে জিজ্ঞাস করুন তো এটি (ক্যাসিনো) পত্রপত্রিকায় কখন সামনে এসেছে? বিএনপির আমলে তো কখনও মিডিয়াতে আসেনি।

‘আজকে পত্রপত্রিকা, টেলিভিশনে যেভাবে এসেছে, এতে প্রমাণিত হয়ে গেছে যে, আওয়ামী লীগ সরকার শুধু দুর্নীতি নয়; তারা বাংলাদেশের যে রাজনৈতিক কাঠমো তা ভেঙে ফেলছে, সামাজিক কাঠামো তা ভেঙে ফেলছে এবং এ দেশকে সত্যিকার অর্থে অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিণত করেছে।’

ছাত্রদলের কাউন্সিল নিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘সরকারের সব ষড়যন্ত্র-চক্রান্ত ভেদ করে অত্যন্ত সফলভাবে ছাত্রদলের কাউন্সিল হয়েছে। নতুন দিগন্তের সূচনা হয়েছে এই কাউন্সিলের মধ্য দিয়ে।’

ছাত্রদলের নবনির্বাচিত দুই নেতাসহ সংগঠনের সাবেক ও বর্তমান নেতাকর্মীদের জিয়ার কবরের সামনে আন্দোলনের শপথ করান ফখরুল।

এ সময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, মির্জা আব্বাস, ছাত্রদলের সাবেক নেতা আবুল খায়ের বাবলু, আসাদুজ্জামান রিপন, ফজলুর রহমান মিলন, খায়রুল কবির খোকন, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, কামরুজ্জামান রতন, হাবিবুল ইসলাম হাবিব, আজিজুল বারী হেলাল, সাইফুল আলম নীরব, শফিউল বারী বাবু, সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, মোরতাজুল করীম বাদরু, আবদুল কাদের ভুঁইয়া জুয়েল, আমিরুল ইসলাম খান আলীম, শহিদুল ইসলাম বাবুল, আবদুল আউয়াল খান, হাবিবুর রশীদ হাবিব, রাজীব আহসান, আকরামুল হাসান, ইয়াসীন আলী উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like us on Facebook