বৃহঃ. আগ ১৩, ২০২০

দৈনিক আজকের বাংলাদেশ

সত্য প্রকাশে আপোষহীণ…

থ্রী হুইলার শ্রমিকলীগ এর নামে প্রকাশ্যে চাঁদাবাজি চলছে বন্দরে!!

নিজেস্ব প্রতিবেদক:

বন্দর উপজেলার কামাল উদ্দিন মোড় এবং বিভিন্ন রাস্তায় দিনে ও রাতে রশিদের মাধ্যমে যানবাহন থেকে চাঁদা আদায় করে থাকে একটি অসাধু চক্র। থ্রী হুইলার শ্রমিকলীগ এর নামে চাঁদা আদায় করার কারনে বন্দর এর রাজনীতি অঙ্গন এবং সুশীল সমাজের কাছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। বর্তমান সরকারের মর্যাদা ক্ষুন্ন করার জন্য একটি সিন্ডিকেট যানবাহনে চাঁদা আদায় রাষ্টের জন্য অশনি সংকেত বলা চলে! প্রকাশ্যে রশিদের মাধ্যমে টাকা আদায় মধ্যযুগীয় বর্বরতা হার মানায়। বর্তমানে প্রধানমন্ত্রীর ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার যে স্বপ্ন তা ম্লান করার জন্য এই অসাধু চক্রই যথেষ্ট। রশিদের মধ্যে সেক্রেটারি এবং আদায়কারী কারোর স্বাক্ষর না থাকলেও থেমে নেই চক্রটি। বর্তমানে নারায়ণগঞ্জ এর দক্ষ পুলিশ সুপার এর মাদক সন্ত্রাস চাঁদাবাজ ভূমিদশ্যুদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্হান থাকার পরও বন্দর এর ঘটনা প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে দাড়িয়েছে। এ সকল অসাধু চাঁদাবাজ সিন্ডিকেটর নেপথ্য কারা তা খতিয়ে দেখা দরকার প্রশাসনের। দোষীদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনের ব্যবস্হা না নিলে সমাজ ব্যাধি হয়ে দাড়াবে ভবিষ্যৎতে।

এ বিষয়ে শ্রমিকলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি আলহাজ্ব শুক্কুর মাহমুদের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি প্রতিবেদক কে জানান, এ ধরনের একটি কমিটির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। তারা না বুঝে রশিদের মাধ্যমে চাঁদা আদায় করে ভূল করেছে ভবিষ্যৎতে করবেনা। এই জায়গায় ষ্টপ থাকেন।

অপরদিকে নাসিক ২৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাইফুদ্দিন আহম্মেদ দুলাল প্রধানের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি প্রতিবেদক কে বলেন, আমার এলাকায় বর্তমান সরকারের দলের নাম বিক্রি করে কোন কমিটির চাঁদাবাজি আমি কখনো মেনে নিবো না সরকার এর দূর্নাম হউক এই কাজ কিছুতেই করতে দেওয়া যায়না।

এ বিষয়ে, বন্দর থানার অফিসার ইনচার্জের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি প্রতিবেদক কে বলেন, এটা জগন্যতম অপরাধ আমরা কোনো চাদাঁবাজকে ছাড় দিবনা এরকম কমিটি আছে তা আমার জানা নেই। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like us on Facebook