শনি. সেপ্টে ২৬, ২০২০

দৈনিক আজকের বাংলাদেশ

সত্য প্রকাশে আপোষহীণ…

সোনারগাঁওয়ে মিথ্যা মামলায় ফাঁসাতে জলিলের নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার ছবি ভাংচুর !!

আজকের বাংলাদেশ রিপোর্ট :-

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের লোকজনকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসাতে আওয়ামীলীগ নামধারী জলিলের(৪২) নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ছবিসহ অফিস ভাংচুর ও সন্ত্রাসী হামলা করার অভিযোগ উঠেছে। সোমবার বিকেলে উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের পাচানী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় এলাকাবাসী জানায়, পিরোজপুর ইউনিয়নের খাসেরগাঁও এলাকার হযরত আলীর ছেলে জলিল পাশ্ববর্তী এলাকার প্রবাসী মহব্বত মিয়ার কাছে ক্লাবের নাম করে একটি ২৮” রঙ্গিন টেলিভিশন দাবী করলে তাকে টিভি দেয়ার পর মহব্বত মিয়ার চাচাতো ভাই কুদ্দুস মিয়াকে রাস্তায় পেয়ে জলিল ও মিরবহরের কান্দী এলাকার সফিকুল ইসলামের ছেলে মাসুদ রানা(২৮) টিভি ভালো হয়নি বলে বিভিন্ন গালমন্দ করে এবং মাসুদ রানা কুদ্দুস মিয়াকে মারদর করে।

এ ঘটনার পর আহত কুদ্দুস মিয়া স্থানীয় মেম্বার জাহাঙ্গীরের কাছে বিচার চায়। পরবর্তীতে জাহাঙ্গীর মেম্বার ও মনির মেম্বার সহ মাসুদ রানা এবং জলিলকে জিজ্ঞেস করে কুদ্দুস মিয়াকে কেনো মারা হলো। এ বিষয়ে কথা বলার পর জলিল ও মাসুদ রানা উত্তেজিত হয়ে মনির মেম্বারের উপর হামলা চালিয়ে তাকে রক্তাক্ত জখম করে। এসময় জাহাঙ্গীর মেম্বার স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় আহত মনির মেম্বারকে চিকিৎসার জন্য সোনারগাঁও উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে যায় এবং ঝগড়া বন্ধ করার জন্য সবাইকে নিয়ে বাড়ীতে চলে আসার পর জাহাঙ্গীর মেম্বার ও মনির মেম্বারকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর জন্য জলিল ও রানা তাদের নিজের অফিসের ভিতরে থাকা বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ভাংচুর করে।

এ বিষয়ে আহত মনির মেম্বার ও জাহাঙ্গীর মেম্বার বলেন,আমাদের বিরুদ্ধে এর আগেও মাসুদ রানা মিথ্যা মামলা করে হয়রানী করতেছে। একজন অসহায় মানুষকে কেনো মারদর করলো এটা জিজ্ঞেস করাতে আজ তারা আমাদের উপরে হামলা চালিয়ে উল্টো আমাদের মিথ্যে মামলায় ফাঁসাতে পায়তারা করছে।জলিল একজন চিহ্নিত প্রতারক ও আওয়ামীলীগের নামধারী চাঁদাবাজ। সে কোন কাজ না করে শুধু আওয়ামীলীগের নাম ভাঙ্গিয়ে বিভিন্ন লোকদের কাছ থেকে চাঁদা আদায় করে। কেউ তার চাঁদার টাকানা দিতে চাইলেই তার উপর হামলা চালায়। আমরা এই চাঁদাবাজ জলিল ও রানার হাত থেকে মুক্তি চাই এবং এই সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় দৃষ্টান্ত মূলক বিচার চাই। এ বিষয়ে অভিযুক্ত জলিল তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ অস্বীকার করেন।
এ বিষয়ে সোনারগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ মনিরুজ্জামান বলেন, উপজেলার পাচানী এলাকায় মারামারির খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like us on Facebook