রবি. অক্টো ২৫, ২০২০

দৈনিক আজকের বাংলাদেশ

সত্য প্রকাশে আপোষহীণ…

হাইওয়েতে অতি:পুলিশ সুপার ও ওসির নেতৃত্বে জনসাধারনের যাতায়াত সুবির্ধাতে রাস্তা থেকে রিক্সা আটক

আজকের বাংলাদেশ রির্পোট :-

আসছে পবিত্র ঈদুল আযহা। ঈদ উৎযাপন উপলক্ষে ঢাকা- চট্রগ্রাম মহাসড়কে জনসাধারন নির্বিগ্নে নিরাপদে যাতায়াতের লক্ষ্যে হাইওয়ের পুলিশ সুপার জিসান ও কাইয়ুম আলী সরদার ওসির নেতৃত্ব চলছে অবৈধ তিন চাকা চলাচলের উপর বিশেষ অভিযান। তারই ধারাবাহিকতায় মহাসড়কে অবস্থানরত অটোরিক্সা সিনএজি গাড়ি সহ আটক করা হচ্ছে। সেই সাথে রাস্থার পাশে গড়ে উঠা ফুটপাতের দোকান অন্যত্র সরিয়ে দেয়ার ও অভিযান অব্যাহত রয়েছে। ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে যখন জনসাধারন পরিবারের সবাইকে নিয়ে ঘরমুখী তখনই মহাসড়ক রাস্তার আনাচে কানাচে অবস্থান করা তিনচাকা গাড়িগুলো আটক করা নিয়ে যাচ্ছে। ফলে অনায়াসে মানুষজন যানজট ছাড়া বাড়ি পৌছাতে পারছে। হাইওয়ে পুলিশের অভিযানে আজ মদনপুর কবির মিয়ার হোটেলের সামনে থেকে সাতটি ব্যাটারি চালিত অটো রিক্সা আটক করে নিয়ে যায়। এ ব্যাপরে পুলিশ সুপার জিসান বলেন, আমরা সরকারের নির্দেশে মহাসড়কে অবস্থানরত অবৈধ রিক্সাকে আটক করছি। সেই সাথে রাস্তার পাশে গড়ে উঠা ফুটপাত সড়িয়ে মহাসড়ক পরিষ্কার রাখছি। যেন ঈদের ছুটিতে যান চলাচলের কোন বিঘ্ন না ঘটে। ঘরমুখী জনগন যেন অনায়াসে বাড়ি পৌছাতে পারে।

হাইওয়ে ওসি কাইয়ুম আলী সরদার বলেন, জনসাধারনের সুবিধায় আমরা মহসড়ক যানজট মুক্ত রাখছি। এমনকি রাস্তার পাশে যেন কোন ফুটপাত বসতে না পারে সে ব্যাপারে পদক্ষেপ নিচ্ছি।
তদন্ত ওসি আলী রেজা বলেন, মহাসড়কে যানজট ও চাঁদাবাজ মুক্ত রাখতে আমরা সর্বাত্বক চেষ্টা করে যাচ্ছি। ঘরমুখো মানুষ যেন নিরাপদে বাড়ি পৌছে ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে পারে সেটাই হাইওয়ে পুলিশ প্রসাসনের একমাত্র লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যে।

তবে রিক্সা চালক পরিবারের মাথায় হাত। তারা বলেন সামনে ঈদ। ছেলে মেয়ে বৌ বাচ্ছাদের নিয়ে আমরা কোথায় যাব। তাদের মধ্যে অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন ব্যাংক থেকে কিস্তির টাকা নিয়ে রিক্সা কিনেছি। এখন ঋনের টাকাই দেব না ঘরে খাবারের ব্যবস্থা করব। তবে পুলিশ সুপার জিসান বলেন আমাদের অভিযান সর্বাত্তক অব্যাহত থাকবে। যারাই সরকারের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মহাসড়কে তিন চাকার গাড়ি চালাবে তাদেরকে কোন ছাড় দেয়া হবেনা। তাদের কাছ থেকে গাড়ি আটক করে নিয়ে আসা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like us on Facebook