দৈনিক আজকের বাংলাদেশ

সত্য প্রকাশে আপোষহীণ…

বন্দর ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী সোহানুর রহমান সোহাগ

এমডি অভিঃ-

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বন্দর উপজেলার বন্দর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন চান বন্দর ইউনিয়ন শ্রমিকলীগের সভাপতি ও অত্র ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী সোহানুর রহমান সোহাগ।

বন্দর ইউনিয়নকে আলোকিত করতে গুরুত্বপূর্ণ এ জনপদে নৌকার মাঝি হয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে মানুষের সেবা করতে চান তিনি।

নির্বাচন কমিশন দেশের ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন দ্রুত শেষ করার জন্য ইতোমধ্যে দ্বিতীয় ধাপের তফসীল ঘোষনা করেছেন। পর্যায়ক্রমে দেশের সকল ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন দ্রুত সমাপ্ত করার লক্ষে গত ২৯ সেপ্টেম্বর দ্বিতীয় ধাপে ৮৪৮ টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষে এ তফসীল ঘোষনা করেছেন। যে কারণে যারা ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচন করার ইচ্ছা পোষন করেছেন-তারা প্রচার-প্রচারণা ও গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন।

তেমনি বন্দর ইউনিয়ন থেকে আসন্ন ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার লক্ষে অনেক আগে থেকেই কার্যক্রম শুরু করেছেন বিশিষ্ট সমাজসেবক ও দলের দূরদিনে বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামে ভুমিকা রাখা ত্যাগী পরীক্ষিত নেতা সোহানুর রহমান সোহাগ।

ইতোমধ্যে তিনি নিজেকে একটি গ্রহণযোগ্য অবস্থানে নিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছেন । নির্বাচনী মাঠে তিনি নতুন মুখ হলেও ইউনিয়নসহ উপজেলা পর্যায়ে সোহানুর রহমান সোহাগ একজন পরিচিত মুখ। সদালোপী ও হাস্যজ্জল একজন চমৎকার মানুষ হিসেবে যে কোন অপরিচিত মানুষকে অতি অল্প সময়ে আপন করে নিতে পারেন। দীর্ঘদিন যাবৎ নি:স্বার্থভাবে তিনি মানুষের সেবা করে যাচ্ছেন।

এলাকার যে কোন মানুষ কোন বিপদ-আপদে পড়লে নিজ উদ্যোগে সেখানে ছুটে যান তিনি। মানুষের বিপদে ঘরে বসে থাকতে পারেন না-ছুটে যান বিপদগ্রস্থ মানুষের পাশে। সদাসর্বদা সাধারণ মানুষকে সহযোগিতা করা, যুব সমাজকে আধুনিক শিক্ষায় শিক্ষিত করা, মাদকমুক্ত ও ক্রীড়ামোদী করে গড়ে তোলার চেষ্টার পাশাপাশি এলাকার সার্বিক উন্নয়নে অংশগ্রহণে সব সময় নিজেকে জড়িয়ে রাখেন। যে কারণে ইউনিয়নের সকল শ্রেণি পেশার মানুষের কাছে জনদরদী হিসেবে পরিচিত হয়ে উঠেছেন তিনি। জনগণের ইচ্ছা ও ভালবাসার প্রতিদান দিতে-জনপ্রতিনিধি হয়ে ইউনিয়নবাসির সেবা করা এবং তাদের সুখ-দুঃখের সাথী হয়ে সর্বদা তাদের পাশে থাকার জন্য এবার এ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করতে চান তিনি।

তিনি বিশ্বাস করেন শুধু ব্যক্তিগত সহযোগীতা দিয়ে সমাজ ও সমাজের মানুষের সব সমস্যার সমাধান করা সম্ভব না। তাই বৃহৎ পরিসরে সমাজের সার্বিক উন্নয়নের স্বার্থে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হতে চান। যে কারণে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেতে মাঠে নেমেছেন তিনি।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like us on Facebook