শনি. ডিসে ৫, ২০২০

দৈনিক আজকের বাংলাদেশ

সত্য প্রকাশে আপোষহীণ…

তারেক জিয়ার নেতৃত্বেই সেদিন বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে গ্রেনেড হামলা চালিয়েছিলো -খান মাসুদ

আজকের বাংলাদেশ রিপোর্ট :-

নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবলীগ নেতা খান মাসুদ বলেছেন, বঙ্গবন্ধু কণ্যা জননেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যই ২০০৪ সালে ২১ আগস্ট ভয়াবহ গ্রেনেড হামলা চালিয়েছিলো।

বাংলাদেশ থেকে আওয়ামীলীগকে নিশ্চিহ্ন করে পাকিস্তানের প্রেতাত্মা জামাত-বিএনপি একক ক্ষমতা কায়েম করতে তারেক জিয়ার নেতৃত্বেই সেদিন বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে গ্রেনেড হামলা চালানো হয়েছিল।

নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবলীগ নেতা খান মাসুদের উদ্যোগে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় শহীদদের স্মরণে আলোচনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার (২১আগস্ট) বাদ আছর বন্দর খানবাড়িস্থ খান মাসুদের নিজ কার্যালয়ে এ দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া পূর্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য প্রদানকালে কর্মীদের উদ্দেশ্য নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবলীগ নেতা খান মাসুদ এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, বিএনপি-জামাত সেদিন শুধু গ্রেনেড হামলা করেই ক্ষান্ত হয়নি জঙ্গিরা সেদিন নেত্রীকে লক্ষ্য করে ছয় রাউন্ড গুলি ছোড়ে। সেই গুলিতে নিহত হয়েছেন আমাদের নেত্রীর দেহরক্ষী। সেই ভয়াবহ গ্রেনেড হামলায় শীর্ষ নেতাদের বেষ্টনীতে ও মহান আল্লাহর অশেষ রহমতে আমাদের নেত্রী প্রাণে বেঁচে গেলেও প্রাণ হারিয়েছেন সাবেক রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান সাহেবের স্ত্রী আইভি রহমানসহ ২৪ জন নেতা কর্মী। গ্রেনেডের স্প্লিন্টারের অসংখ্য নেতা কর্মী সেদিন আহত হয়। সেদিনের কথা মনে পরলে এখনো গাঁ শিউরে উঠে।

পাকিস্তানি দোসরা আমরা নেত্রীকে বার বার হত্যা করার চেষ্টা করেছিল কিন্তু বাংলার আপামর জনগণের দোয়া ও আল্লাহর অশেষ রহমতে আমাদের নেত্রী বেঁচে যান। শকুনিরা এখনো থেমে নেই লন্ডনে বসে বসে তারেক জিয়া দেশ বিরোধী নানা ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে। আমাদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে ওরা সুযোগ পেলেই আবার বড় ধরনের ক্ষতি করার চেষ্টা করবে। দেশের যেকোনো ষড়যন্ত্র মোকাবিলায় জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে নারায়ণগঞ্জের গণমানুষের নেতা আলহাজ্ব এ কে এম শামীম ওসমান ভাইয়ের নেতৃত্বে আমরা সর্বদা প্রস্তুত আছি।

এছাড়া আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন, আমিন আবাসিক এলাকা পঞ্চায়েত কমিটির সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান, বন্দর থানা যুবলীগ মোঃ মাসুম আহমেদ,যুবলীগ নেতা,শেখ মমিন,বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ নাদিম,সুমন, মোঃ হোসেন,মসুদ হাসান,মিলন আহমেদ, আজিজুল হক আজিজ,কামাল হোসেন, বন্দর থানা ছাত্রলীগের সাবেক যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মঈনুদ্দিন মানু,রাজু আহমেদ, আকিব হাসান রাজু প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like us on Facebook