সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২১

দৈনিক আজকের বাংলাদেশ

সত্য প্রকাশে আপোষহীণ…

শহরে বেপরোয়া কিশোর মোটর গ্যাং, রিক্সাচালক ও যাত্রী আহত

আজকের বাংলাদেশ রিপোর্ট:

দিগুবাবুর বাজার থেকে রিক্সায় করে ১নং বাবুরাইল নিজ বাড়িতে যাচ্ছিলেন মোসলেহ উদ্দিন খোকন (৩৫)। ডিআইটি আলী আহাম্মদ চুনকা নগর পাঠাগারের সামনের সড়কে পৌঁছতেই গুলশান হলের সামনে থেকে ছুটে আসা একটি বেপোরায়া মোটর সাইকেল ধাক্কা দেয় রিক্সাটিকে। সেখানেই ছিটকে পড়েন চালক ও যাত্রী। পথচারীরা মোটর সাইকেলটি আটকের চেষ্টা করলে (ঢাকা মেট্রো-ল ৩৮-৫২৪৩) ও (ঢাকা মেট্রো ল ২৬-২৪৫২) নম্বরের আরো দুটি মোটরসাইকেলে করে মুহূর্তেই ছুটে আসে ৫ যুবক। ছিনিয়ে নিয়ে যায় ঘাতক মোটর সাইকেলটিকে।

শুক্রবার (২০ সেপ্টেম্বর) রাত সোয়া ১১ টায় এ ঘটনা ঘটে। আহত অপর জন কাশিপুর খিলমার্কেটের আল আমিন গ্যারেজের রিক্সা চালক নাঈম মিয়া (৩০)। তাদের উদ্ধার করে ১শ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে পাঠায় পথচারীরা। আহতদের মধ্যে মোসলেহ উদ্দিনের অবস্থা আশঙ্কা জনক।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ঘাতক মোটর সাইকেলটির চালক মাতাল অবস্থায় রিক্সাটিকে ধাক্কা দেয়। এসময় মোটরসাইকেলটি অন্তত ৮০ কিলোমিটার বেগে ছুটছিলো। নাম না প্রকাশের শর্তে স্থানীয় এক দোকান মালিক জানান, প্রায় প্রতি রাতেই একদল কিশোর ও যুবক মোটর সাইকেলে করে শহরের সড়কে মহড়া দেয়। স্থানীয়দের কাছে তারা মোটর গ্যাং নামে পরিচিত। প্রায়ই ছোটখাটো দূর্ঘটনা ঘটায় এই গ্যাংয়ের সদস্যরা। গ্যাংয়ের অধিকাংশ সদস্য জিমখানা এবং র‌্যালী বাগান এলাকার কিশোর। গ্যাংয়ের সদস্যরা সম্প্রতি বেপরোয়া হয়ে উঠছে বলে তার অভিযোগ।

ঘটনাস্থলে থাকা পিয়াস আহমেদ নামের এক যুবক বলেন, ঘটনার ৩০ মিনিটের মধ্যেই ইজিবাইক ও ব্যাটারি চালিত রিক্সায় করে পনের বিশ জন কিশোর ঘটনা স্থলে পৌঁছে। সেখানে কিছুক্ষণ অবস্থান করে পুনরায় ফিরে যায়। তার ধারনা, শহরের কোন বেপরোয়া কিশোর গ্যাংয়ের সদস্য এরা।

আহতের মধ্যে মোসলেহ উদ্দিনের অবস্থা আশঙ্কা জনক বলে জানান সদর জেনারেল হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক গোলাম মোস্তফা। তিনি বলেন, তার মাথায় বড় ধরনের চোট লেগেছে। তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছি।

তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেন ঘটনাস্থল পরিদর্শনে আসা সদর থানার ওসি (তদন্ত)। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা শেষে মামলার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে বলে জানান আহত মোসলেহ উদ্দিনের বড় ভাই আলাউদ্দিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like us on Facebook