বৃহঃ. সেপ্টে ২৪, ২০২০

দৈনিক আজকের বাংলাদেশ

সত্য প্রকাশে আপোষহীণ…

অসহায় ১৩০০ পরিবারের মাঝে আব্দুল আউয়াল গাজী’র খাদ্য সামগ্রী সহয়তা

আজকের বাংলাদেশ ডেস্ক:-

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সমগ্র দেশের মানুষ ঘরে অবস্থান করায় কাজের অভাবে দিনমজুর ও খেটে খাওয়া মানুষরা আর্থিক ও খাবার সংকটে পড়েছে বিধায় (বন্দরের) নাসিক ২৭নং ওয়ার্ডের কুড়িপাড়া এলাকার বাসিন্দা ও সমাজসেবক আব্দুল আউয়াল গাজীর ব্যক্তিগত উদ্যোগে অত্র ২৭নং ওয়ার্ডের সকল গ্রামের নিম্ন আয়ের, দরিদ্র, দুঃস্থ, অসহায়, বিধবা, বৃদ্ধ, স্বামী পরিত্যাক্তা, দিনমজুর ও রিক্সাচালক এমন শ্রেণির প্রায় ১৩০০ পরিবারকে খাদ্যসামগ্রী পৌছে দেয়া হচ্ছে বলে জানানো হয়েছে। তন্মধ্যে ওয়ার্ডের কুড়িপাড়া, লালখারবাগ, চাঁপাতলী, সারেংসারবাগ, ফুলহর ও হরিপুরের কিছু অংশে বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার খাদ্যসামগ্রী পৌছে দেয়া হয়েছে এবং শনিবার হরিপুরের অবশিষ্ট অংশ, বঙ্গশাসন ও মুরাদপুর গ্রামের অসহায়দের বাড়িতে খাদ্যসামগ্রী পৌছে দেয়া হবে বলে গণমাধ্যমকে আশ^স্ত করা হয়েছে। (১০ এপ্রিল) শুক্রবার সকালে অসহায়দের ঘরে ঘরে আব্দুল আউয়াল গাজীকে খাদ্যসামগ্রী পৌছে দিতে দেখা গেছে এবং এসময় বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নান, ২৭নং ওয়ার্ড জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক হযরত আলী, কুড়িপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সাবেক অভিভাবক সদস্য মজিবুর রহমান, সমাজসেবক শরীফুল ইসলাম গুড্ডু ও মুসলিম মিয়া সহ বিতরণে সম্পৃক্ত স্বেচ্ছাসেবকরা উপস্থিত ছিলেন। খাদ্যসামগ্রীর প্রতিটি প্যাকেটে চাল, ডাল, আলু, পেঁয়াজ ও লবন দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। বিতরণকালে সমাজসেবক আব্দুল আউয়াল গাজী গণমাধ্যমকে জানান, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে জনগণকে সচেতন করতে এবং অসহায়রা যাতে খাদ্য সংকটে না পড়ে সেজন্য সরকার ব্যাপক কার্যক্রম পরিচালনা করছেন। কিন্তু সরকারের একার পক্ষে এ দুর্যোগ মোকাবেলা করা কঠিন। তাই আমাদের প্রত্যেকের উচিৎ সরকারকে সহায়তা করা। দিনমজুর ও অসহায়রা কাজে যেতে পারছেনা। তাই তারা খাবারের সমস্যায় পড়েছে বিধায় আমি তাদের পাশে দাড়িয়েছি। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সরকার নির্দেশিত স্বাস্থ্যবিধি আমাদেরকে মেনে চলতে হবে এবং সবাইকে মাস্ক ব্যবহার করতে হবে ও কিছুক্ষণ পর পর সাবান দিয়ে হাত ধোয়া সহ সবাইকে সতর্ক থাকার অনুরোধ জানাচ্ছি। জনগণকে এ ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব থেকে দূরে রাখতে সমগ্র নারায়ণগঞ্জ জেলাকে সরকার লকডাউন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সেজন্য সরকারকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। তিনি আরও বলেন, দেশের স্বার্থে সমাজের বিত্তবানদের কাছে বিনীত অনুরোধ থাকবে, আপনারা দয়া করে যার যার অবস্থান থেকে অসহায়দের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিন। আর অবশ্যই সকলে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখুন। সবাই ঘরে থাকুন ও বিনা প্রয়োজনে কেউ ঘর থেকে বের হবেন না। খাদ্যসামগ্রী বিতরণে আমার এই কার্যক্রম চলমান থাকবে। আমাদের এই এলাকার অসহায় মানুষের পাশে আগেও ছিলাম, বর্তমানে আছি এবং ভবিষ্যতেও থাকবো ইনশাআল্লাহ। করোনা প্রতিরোধে আসুন সকলে সতর্ক থাকি এবং বেশী বেশী আল্লাহর কাছে দোয়া চাই’।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like us on Facebook