সোম. নভে ৩০, ২০২০

দৈনিক আজকের বাংলাদেশ

সত্য প্রকাশে আপোষহীণ…

আপনারা কারা যারা বলছেন তোলারাম কলেজে ছাত্রদের নির্যাতন করা হয় প্রশ্ন শামীম ওসমানের

আজকের বাংলাদেশ রিপোর্ট:
 নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ একেএম শামীম ওসমান শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি প্রশ্ন করেন, ‘তোলারাম কলেজে টর্চার সেল কোথায় আছে? যেখানে মানুষ পিটানো হয়। আছে নাকি নাই? যদি না থাকে তাহলে হাত তুলে দেখাও। নাই? তাহলে আপনারা কারা যারা বলছেন শহীদ মিনারে দাঁড়িয়ে বলেন যে তোলারাম কলেজে ছাত্রদের নির্যাতন করা হয়।’
বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) দুপুরে সরকারি তোলারাম কলেজে নবীণ বরণ উৎসবে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, ‘শুধু শহীদ মিনারে নয় আপনারা জেলা প্রশাসকের কার্যলয়ে দাঁড়িয়ে বলেছেন। আমি তোলারাম কলেজের অধ্যক্ষকে ধন্যবাদ জানাই। তিনি সাথে সাথে চ্যালেঞ্জ করেছেন এবং বলেছেন, চলেন সমস্ত আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী নিয়ে আমার কলেজে গিয়ে দেখান আমার কলেজে কোথাও একটা ছাত্র নির্যাতন হচ্ছে কিংবা করার জন্য ব্যবস্থা আছে সেখানে। যদি করা হয়ে থাকে তাহলে আমি নিজে পদত্যাগ করবো।’
তিনি আরও বলেন, ‘তাহলে যারা বলছেন তারা কি আফগানিস্তান থেকে এসেছেন? তাতো না। আফ্রিকা থেকেও আসেন নাই। সুন্দরবনে জঙ্গলে থাকা কোনো জংলি পুরুষ তারা না। তারা আমার চেয়ে জ্ঞানী মানুষ। নামের আগে পরে অনেক টাইটেল আছে তাদের কারো নামে কবি, কারো নামে সাহিত্যিক। কারো নামে বিপ্লবী, কারো নামে ওমুক সভাপতি, ওমুক সাধারণ সম্পাদক। বলছেন কেন? কার ভবিষ্যৎ নষ্ট করছেন। আপনার বাচ্চার? তোলারাম কলেজকে যদি আপনি বিতর্কিত করেন, মহিলা কলেজকে যদি আপনি বিতর্কিত করেন, নারায়ণগঞ্জ কলেজকে যদি আপনি বিতর্কিত করেন। কাকে বিতর্কিত করছেন? আমাকে? কেন? এই কলেজের ছাত্ররা আমাদেরকে ভালোবাসে একটু বেশি এই জন্য? আপনি এতো স্বার্থপর, এতো জঘন্য! আপনি এতো নিচু মানসিকতার লোক! যে আপনি আপনার সন্তানদেরকে টাইটেল দিয়ে দিচ্ছেন খুনি, গুন্ডা, মাস্তান।’
শামীম ওসমান বলেন, ‘২০ হাজার ছাত্র যদি রাস্তায় বের হয়। মহিলা কলেজেও ১০ হাজার আছে। নারায়ণগঞ্জ কলেজেও ১০-১৫ হাজার ছাত্র আছে। যদি সবাই মিলে রাস্তায় নেমে বলে শহীদ মিনারে দাঁড়িয়ে মিথ্যা বললি কেন? কে আপনাদের রক্ষা করবে? আমাদের বাচ্চাদের আঘাত কইরেন না। এতে আপনার বাচ্চা আঘাতপ্রাপ্ত হবে। ভুল থাকতে পারে। সংশোধন করেন। আপনার মতামত থাকতে পারে। সেই মতামত বলেন।’
এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান ও শামীম ওসমানের স্ত্রী সালমা ওসমান লিপি, সরকারি তোলারাম কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর বেলা রানী সিংহ, উপাধ্যক্ষ শাহ্ মো. আমিনুল ইসলাম, কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ও জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শিরিন আক্তার, শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জীবন কৃষ্ণ মোদক প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like us on Facebook