শনি. সেপ্টে ২৬, ২০২০

দৈনিক আজকের বাংলাদেশ

সত্য প্রকাশে আপোষহীণ…

ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে বাসভাড়া ৩০ টাকা নির্ধারণ করতে হবে: সিপিবি

আজকের বাংলাদেশ রির্পোট:-

ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে সরকারি চার্ট অনুযায়ী ৩০ টাকার বেশি বাস ভাড়া নির্ধারণের দাবিতে নগরীতে সমাবেশ করেছে সিপিবি নেতৃবৃন্দ।

শনিবার (৩১ আগস্ট) বিকাল ৪টায় চাষাড়া শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি হাফিজুল ইসলামের সভাপতিত্বে এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেনর্ কেন্দ্রীয় কমিটির অন্যতম নেতা রুহিন হোসেন প্রিন্স। আরো উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এড. মন্টু ঘোষ, জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক শিবনাথ চক্রবর্তী, জেলা সম্পাদক মন্ডলির সদস্য বিমল কান্তি দাস, আ. হাই শরীফ, শাহানারা বেগম, জেলা কমিটির সদস্য দুলাল সাহা, ইকবাল হোসেনসহ বিভিন্ন থানা কমিটির নেতৃবৃন্দ।

সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে সরকারি চার্ট অনুযায়ী ৩০ টাকার বেশি বাস ভাড়া হতে পারে না। একটা সিন্ডিকেটের কারণেই এই বেশি ভাড়া নেয়া হচ্ছে। জনগনের দাবি অনুযায়ী ভাড়া কমানোর ব্যবস্থা নেওয়া হোক। ডেঙ্গু জ্বরে দেশবাসী আজ আতঙ্কিত। কিন্ত সরকার কার্যকর কোন ব্যবস্থা নেয় নাই। দেশের প্রাকৃতিক পরিবেশ ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। শিল্পকারখানার বর্জ্য ও দুষিত পানি নদীর পানির সাথে মিশে সকল নদ-নদীর পানি পঁচে যাচ্ছে। বন ও গাছপালা উজাড় হয়ে যাচ্ছে। শহরগুলোতে ময়লা ও আবর্জনা পরিস্কারের ব্যবস্থা নেই। সামান্য বৃষ্টি হলেই জলাবদ্ধতাসহ জনদুর্ভোগ তৈরী হচ্ছে। মশা-মাছি দুর্গন্ধ এমন মাত্রা ধারণ করেছে যে মানুষ বসবাসের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। সরকার এ বিষয়ে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারছে না। কিন্তু সৌন্দর্য আর যানজটের কথা বলে হকার-বস্তি-রিক্সা উচ্ছেদ করা হচ্ছে। উচ্ছেদের নামে দেশে লক্ষ লক্ষ মানুষের পেটে লাথি মারা হচ্ছে। পুনর্বাসন ছাড়া হকার-বস্তি-রিক্সা উচ্ছেদ আমরা মেনে নেব না। নেতৃবৃন্দ আরও বলেন একটা লুটেরা সিন্ডিকেটের হাতে চামড়া শিল্প। জনগন এবার চামড়ার কোন মূল্য পায়নি। সরকার এই লুটের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয় না। এই সকল লুটপাটের বিরুদ্ধে কথা বললে তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দেয়া হচ্ছে। জেলা কমিটির সভাপতি কমরেড হাফিজুল ইসলামের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা দেয়া হয়েছে। আমরা অবিলম্বে এই মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছি।

নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, এই লুটেরা ধনিকদের রাজনীতি দিয়ে আর ভালো কিছু হবে না। মেহনতি মানুষের বিকল্প রাজনীতিকে সামনে আনতে হবে। বিকল্প হিসেবে মেহনতি মানুষের একটা সমাজ ব্যবস্থা ও সরকার গঠন করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like us on Facebook