মঙ্গল. সেপ্টে ২২, ২০২০

দৈনিক আজকের বাংলাদেশ

সত্য প্রকাশে আপোষহীণ…

নারায়ণগঞ্জে জনপ্রতিনিধিকে হেয় করতে ফিরোজের সাজানো বিক্ষোভ

আজকের বাংলাদেশ ডেস্ক:-

নারায়ণগঞ্জের বন্দরের দক্ষিণ কুশিয়ারা এলাকায় গত দুইদিন আগে একটি মানববন্ধন ও বিক্ষোভের সংবাদ স্থানীয় অনলাইন নিউজ পোর্টালে ও পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর সত্যতা নিশ্চিত হতে সরেজমিন আবারও গণমাধ্যমকর্মীরা অনুসন্ধান চালায়। সেখানে উঠে আসে প্রকৃত আসল ঘটনা।

জানা যায়, গত শুক্রবার ১৫ মে সকাল সাড়ে ১০ টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত ঘন্টা ব্যাপী বন্দর ইউনিয়ন ৮নং ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার ও আওয়ামীলীগ নেতা মো. ফিরোজ মিয়া ওরফে (ফেউরা) নেতৃত্বে তার আত্বীয় স্বজন ও পরিবারের সদস্যদের নিয়ে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করে।

বিক্ষোভকারীদের দাবিগুলো ছিলো, লকডাউনের কারণে অনেকের কাজ বন্ধ। ফলে তাদের ঘরে খাবার নাই, অনেকে খেয়ে না খেয়ে অনাহারে জীবনযাপন করছি। চেয়ারম্যান ও মেম্বার এখনো আসেনি। এবং এ পর্যন্ত সরকারী কোন সাহায্য পাই নাই। এলাকার মানুষ কিছুই পায় নাই। আমরা বন্দর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, মেম্বারকে জানিয়েছি। কিন্তু তারা কিছুই দেয় নাই।চেয়ারম্যান ও মেম্বার আমাগো চিনেই না, একটা সিলিভও দেয় নাই। আমাদের কাছ থেকে ভোটার আইডি কার্ড ও নাম ঠিকানা, মোবাইল নাম্বার নিয়ে যায়। তাদের কাছে গেলে তারা বলে ফোন দিমুনে। ২/৩ মাস যাবৎ কাজ কাম বন্ধ আমরা এখনও পর্যন্ত চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের কাছ থেকে আমরা কোন সাহায্য সহযোগীতা পাই নাই।

এ ঘটনায় সরোজমিনে বন্দর ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডে স্থানীয় এলাকাবাসী’র সাথে আলাপকালে তারা সাংবাদিকদের কে জানান, গত শুক্রবার সাবেক ফেউরা মেম্বারের নেতৃত্বে তার আত্বীয় স্বজন ও পরিবারের সদস্যরা যে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি দক্ষিণ কুশিয়ারায় করেছে সেখানে তাদের যে বক্তব্য ও দাবি সেগুলো ছিলো বর্তমান বন্দর ইউনিয়ন ৮নং ওয়ার্ডের মেম্বার আব্দুস সালাম ও বন্দর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এহসান উদ্দিন কে হেয়প্রতিপন্ন করার জন্য উদ্দেশ্য প্রণোদিত।

সাবেক ফেউরা মেম্বার আগে একসময় বিএনপির রাজনীতির সাথে জড়িত ছিল, তারপর জাতীয়পার্টি করে এখন বিভিন্ন পন্থায় ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতির পদ বাগিয়ে নিয়ে নিজেকে আওয়ামীলীগার দাবি করে, সে আসলে এমন প্রকৃতির লোক যখন যে দল ক্ষমতায় আসে সে তখন সেই দলই করে নিজের সুবিধা আদায়ের জন্য।

স্থানীয় এলাকাবাসী আরোও বলেন, গতকালের তাদের যে বক্তব্য ও দাবি সেগুলো সম্পূর্ন বানোয়াট ভিত্তিহীন কারন সে মানববন্ধনে যারা যারা উপস্থিত ছিলেন তারা প্রত্যকেই তার আত্বীয় ও পরিবারের সদস্য। সেখানে তারা ছাড়া দক্ষিণ কুশিয়ারা এলাকার আর কোন লোক উপস্থিত ছিলো না। আমরা নিজেরাও জানি যে বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশ স্বাধীনের পরে এবার করোনা ভাইরাসের এ মহামারীতে বাংলাদেশের ১৭ কোটি মানুষের পাশে যেভাবে পাশে দাড়িয়েছেন তা আজও দেশের ইতিহাসে বিগত কোনো সরকার করে দেখাতে পারেনি। একটি পরিবারের প্রত্যাকটি মানুষকে তো আর আলাদাভাবে দেওয়া সম্ভব না। আমাদের বন্দর ইউনিয়নের সু-যোগ্য চেয়ারম্যান এহসান উদ্দিন ও ৮নং ওয়ার্ডে মেম্বার আব্দুস সালাম আমাদের ৮ নং ওয়ার্ডসহ বন্দর ইউনিয়নের প্রত্যাকটি ওয়ার্ডে সরকারি ত্রান ও নিজেদের পক্ষ থেকে দিয়ে আমাদের পাশে আছেন। গত শুক্রবার সকালে সাবেক ফিরোজ মেম্বারের নেতৃত্বে তার আত্বীয় স্বজন ও পরিবারের সদস্যরা যে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি দক্ষিণ কুশিয়ারায় করেছে তা সম্পূর্ন মিথ্যা ভিত্তিহীন বানোয়াট আমরা আমরা ৮ নং ওয়ার্ডবাসী এর তীব্র নিন্দা ও জোড় প্রতিবাদ প্রতিবাদ জানাই।

এ বিষয়ে সাবেক মেম্বার ফিরোজ মুঠোফোন এ যোগাযোগ করলে তিনি জানান, আমার ছেলের বউ শুধু মাত্র ত্রাণ পেয়েছে অন্য অনেকেই পায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like us on Facebook