শনি. নভে ২৮, ২০২০

দৈনিক আজকের বাংলাদেশ

সত্য প্রকাশে আপোষহীণ…

ফতুল্লায় ঘরে ডেকে ভাগ্নিকে ধর্ষণ চেষ্টা, মামা গ্রেপ্তার

আজকের বাংলাদেশ রিপোর্ট:

ফতুল্লায় রান্না করার কথা বলে কিশোরী ভাগ্নিকে ঘরে ডেকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মামাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

রবিবার (১৮ আগস্ট) ভোরে ফতুল্লার মুসলিম নগর নয়াবাজার গিয়াস উদ্দিনের ভাড়া বাড়িতে এ ধর্ষন চেষ্টার ঘটনা ঘটে। পরে সোমবার রাতে ভুক্তভোগীর দায়ের করা মামলায় অভিযুক্ত রিপনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

অভিযুক্ত রিপন (২১) পটুয়াখালীর গলাচিপা থানাধীন মাঝগ্রামের বাসিন্দা আবুল কাশেম খানের ছেলে। বর্তমানে মুসলিমনগর নয়াবাজার গিয়াস উদ্দিনের ভাড়া বাড়িতে সপরিবারে বসবাস এবং একটি গার্মেন্টসে চাকুরি করতো সে।

মামলার বরাত দিয়ে ফতুল্লা মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবুল কাশেম জানান, ১৫ বছর বয়সী ভুক্তভোগী কিশোরী ও অভিযুক্ত চাচাতো মামা রিপন একই বাড়িতে আলাদা ভাড়া থাকেন। তারা উভয়েই গার্মেন্টস কর্মী। ঈদের ছুটিতে রিপন তার পরিবার নিয়ে গ্রামের বাড়িতে যায়। এরপর গত ১৮ আগস্ট ভোর সকালে রিপন একাই তার ভাড়া বাসায় ফিরে আসে। এ সময় তার ভাগ্নিকে খাবার রান্না করতে বলে এবং এর জন্য নিজের ঘরে ডেকে নিয়ে যায়। ভুক্তভোগী কিশোরী ঘরে প্রবেশ করতেই রিপন তাকে ধর্ষণের উদ্দেশ্যে মুখ চেপে ধরে এবং যৌন নিপীড়ন চালায়। মেয়েটি রিপনের হাত থেকে রক্ষা পেতে ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে নিজের ঘরে চলে যেতে সক্ষম হয়। এবং সোমবার রাতে ফতুল্লা মডেল থানায় অভিযুক্ত রিপনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আসলাম হোসেন বলেন, ‘গতকাল রাতে কিশোরী তার চাচাতো মামা রিপনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। পরবর্তীতে আমরা অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করি। তদন্ত চলছে, বাকিটা তদন্তের পর জানা যাবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like us on Facebook