বুধ. অক্টো ২১, ২০২০

দৈনিক আজকের বাংলাদেশ

সত্য প্রকাশে আপোষহীণ…

বন্দরে যুবককে হাতুরি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা, বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার

আজকের বাংলাদেশ রিপোর্ট:

বন্দরে খোকন (৩৭) নামে এক ব্যক্তিকে হাতুরি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করে লাশ গুম করার জন্য বস্তাবন্দি করে নদীতে ফেলে দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

শুক্রবার (২০ সেপ্টেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টায় বন্দরের কুড়িপাড়া এলাকা থেকে ওই লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এর আগে বুধবার রাতে তাকে হাতুরি দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করা হয়।

নিহত খোকন বন্দরের কুড়িপাড়া এলাকার বাসিন্দা। সে মদনপুরের অহিদের বালুমহালে চাকরি করতো।

এ ঘটনায় ঘাতক আলামিনকে (৩০) আটক করেছে পুলিশ। সে একই এলাকার তাওলাদের ছেলে।

পুলিশ ও নিহতের স্বজনদের সূত্রে জানা গেছে, খোকন বালুমহালে কাজ করতো। ওই মহালের মালিক মদনপুরের অহিদ। মালামাল লোড-আনলোডের টাকা খোকনের কাছে থাকতো। সেই টাকা পড়ে মালিকের কাছে জমা দিতো সে। গত বুধবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাতে ভল্কেড আনলোড হওয়ার পর ৭০ হাজার টাকা দিছে। সেই টাকা নিয়ে গোডাউন ম্যানেজার ও পূর্ব পরিচিত আলামিনের কাছে যায়। আলামিনের সাথে তার এক বন্ধুও ছিল সেখানে। এ সময় টাকা আত্মসাৎ ও পূর্ব শত্রুতার জের ধরে খোকনের সাথে তাদের মারামারি লেগে যায়। এ সময় আলামিন ও তার বন্ধু মিলে খোকনকে হাতুরি দিয়ে পেটায়। পরে খোকনের মৃত্যু হলে তার লাশ গুম করতে বস্তাবন্দি করে নদীতে ফেলে দেয়।

এ বিষয়ে বন্দর থানা পুলিশের পরিতর্শক (তদন্ত) আজহারুল ইসলাম বলেন, ‘বুধবার রাত সাড়ে ৯টায় বাড়ি থেকে বেরিয়ে বাসায় না ফেরাতে বৃহস্পতিবার রাতে খোকনের স্ত্রী থানায় একটি জিডি করেন। পরে আত্মীয়-স্বজন খোঁজ করতে করতে আলামিনের রুমে রক্তমাখা চাদর পায়। পরে আলামিনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে খুনের বিষয়টি স্বীকার করে। তার দেওয়া তথ্যমতে শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।’

এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান থানা পুলিশের এই কর্মকর্তা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like us on Facebook