শনি. সেপ্টে ২৬, ২০২০

দৈনিক আজকের বাংলাদেশ

সত্য প্রকাশে আপোষহীণ…

মামলা করে যেন ভুলই করেছেন বাদী

আজকের বাংলাদেশ রিপোর্ট:

স্বামীকে কুপিয়ে জখম করার ঘটনায় মামলা করে যেন ভুলই করেছেন তিনি। আসামি জামিনে বেরিয়ে এসে মামলা তুলে নিতে নানা ধরণের হুমকি দিচ্ছে। পরিবারের সবাইকে নিয়ে ঘরছাড়া মামলার বাদী তার সন্তানদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানেও পাঠাতে পারছেন না মামলার আসামিপক্ষের ভয়ে। আশ্রয় নিয়েছেন এক আত্মীয়ের বাড়িতে।

এমন ঘটনা ঘটেছে আড়াইহাজারের বাড়ৈপাড়া এলাকার বাসিন্দা হাসিনা বেগমের সাথে। এমন অবস্থায় পুলিশ-প্রশাসনের কাছে জীবনের নিরাপত্তা চেয়েছেন ভুক্তভোগী ও তার পরিবার।

মামলা সূত্রে জানা যায়, বাড়ৈপাড়া এলাকার কাদিরের ছেলে আমান একই এলাকার আলীর ছেলে রিকশাচালক আল-আমিনের স্ত্রী হাসিনা বেগমকে বিভিন্ন সময় রাস্তায় একা পেলে উত্যক্ত করতো। এতে প্রতিবাদ জানান তার স্বামী। এরই জেরে গত ১৫ আগস্ট রাস্তায় একা পেয়ে তার স্বামীকে দা দিয়ে উপর্যুপরি কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করেন আমান ও তার সহযোগিরা।

মামলার বাদী হাসিনা বলেন, এ ঘটনায় আমি বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা করি। মামলার প্রধান আসামি বাড়ৈপাড়া এলাকার আমানকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে সে জামিনে বের হয়ে আমাকে নানাভাবে প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে। দলবল বেঁধে জোর করে বাড়িতে প্রবেশ করে সাদা কাগজে স্বাক্ষর নেয়ার চেষ্টা করছে। এতে আমি রাজি না হলে আমার ঘরে তালা লাগিয়ে আমাকে বাড়ি থেকে বের করে দেয়া হয়। মামলা তুলে না নিলে তারা আমার স্কুল পড়–য়া দুই সন্তানকে হত্যা করবে বলে নানাভাবে হুমকি দিচ্ছে। এমতাবস্থায় তাদের স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দিতে হয়েছে। প্রাণভয়ে আমি পরিবার নিয়ে দশ দিন ধরে নিকট এক আত্মীয়ের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছেন। আমি স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের কাছে নিরাপত্তা চাচ্ছি।

তিনি জানান, তার ছেলে হাসিবুর স্থানীয় বাড়ৈপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র ও মেয়ে নুসরাত স্থানীয় একটি মাদ্রাসায় পড়ছে।

এ বিষয়ে আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হবে। বাদী ও তার পরিবারের নিরাপত্তার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like us on Facebook