শনি. ডিসে ৫, ২০২০

দৈনিক আজকের বাংলাদেশ

সত্য প্রকাশে আপোষহীণ…

সোনারগাঁওয়ে মাদক বিক্রিতে বাঁধা দেয়ায় কলেজ ছাত্রকে কুপিয়েছে সন্ত্রাসীরা

আজকের বাংলাদেশ রিপোর্ট :-

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে মাদক বিক্রিতে বাঁধা দেয়ায় কলেজ ছাত্র সামিদ হোসেন ইমনকে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করেছে সন্ত্রাসীরা।

গতকাল রাত ৮.৩০ মিনিটের দিকে সোনারগাঁও উপজেলার বাড়ি চিনিশ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
এই ঘটনায় আহত ইমনের চাচাতো ভাই উপজেলা যুবলীগের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক মাসুম বিল্লাহ বাদি হয়ে সোনারগাঁও থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগে তিনি উল্লেখ করেন, দীর্ঘদিন যাবত সোনারগাঁওয়ের বাড়ী মজলিশ,বাড়ী চিনিষ, বন্দেরা, হাবিবপুর, মোগড়াপাড়া চৌরাস্তা এলাকায় র‍্যাবের হাতে নিহত গিট্টু হৃদয়ের সেকেন্ড-ইন-কমান্ড হিসেবে মাদক ব্যবসা করে যাচ্ছে শীর্ষ সন্ত্রাসী ও একাধিক মাদক ও হত্যাচেষ্টা মামলার আসামি অনয়, আরাফাত,সানি,হিমেল, সাকিল, ফেরদৌস ও তাওহিদ সহ অজ্ঞাত আরও ১০/১৫ জনের একটি সংঘবদ্ধ সন্ত্রাসী বাহিনী।তাদের অত্যাচারে আমাদের এলাকার সাধারণ মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছিলো। সর্বশেষ কয়েক মাস আগে র‍্যাবের হাতে ক্রসফায়ারে গিট্টু হৃদয় নিহত হলে কিছু দিন সানি ও আরাফাত বাহিনী পালিয়ে থেকে এখন আবার তারা একত্রিত হয়ে এলাকায় মাদক ব্যবসা ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করে যাচ্ছে।আমিও আমার ভাই ইমন তাদের মাদক ব্যবসায় বাধা দেয়ায় তারা আমার ভাইকে একা পেয়ে নির্মমভাবে চাপাতি লোহাররড ছুড়ি দিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে।এসময় তারা আমার ভাইয়ের ২লক্ষ৪০ টাকা দামের একটি মটরসাইকেল ভাংচুর করে এবং সাথে থাকা ২৭হাজার টাকা মূল্যের মোবাইল নিয়ে যায়।এসময় তার ডাক চিৎকারে লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করি।বর্তমানে সে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।

থানায় অভিযোগ করার পরও সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে আমাদের প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে।ঘটনাস্থল থানার কাছাকাছি থাকার পরও সন্ত্রাসীদের ধরতে পুলিশের কোন তৎপরতা নেই। আমরা এখন সন্ত্রাসীদের ভয়ে আতঙ্কিত আছি।

এ বিষয়ে সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, এঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি, তদন্ত সাপেক্ষে আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like us on Facebook