মঙ্গল. সেপ্টে ২৯, ২০২০

দৈনিক আজকের বাংলাদেশ

সত্য প্রকাশে আপোষহীণ…

সোনারগাঁয়ে শিশু ধর্ষণ চেষ্টার ২১দিন পর অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার, আদালতে জবানবন্দি

আজকের বাংলাদেশ রিপোর্ট:

সোনারগাঁয়ের শিশু ধর্ষণ চেষ্টার ২১দিন পর অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। অভিযুক্ত ইদ্রিস আলী ওরফে ইদুবারদী ইউনিয়নের আলগীর চর গ্রামের বাসিন্দা।

শুক্রবার (২০ সেপ্টেম্বর) রাতে আড়াইহাজার উপজেলার নোয়াকান্দি গ্রাম থেকে পুলিশ গ্রেফতার করে।

জানা যায়, গত ২৯ আগষ্ট বাড়ির উঠানে খেলার করার সময় কৌশলে ঘরে নিয়ে ওই শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টা করে ইদ্রিস আলী ওরফে ইদু। ঘটনার পর ওই শিশুর মা দাবী হয়ে সোনারগাঁ থানায় মামলা দায়ের করেন।

ঘটনার ২২দিন পর ২১ সেপ্টেম্বর শনিবার দুপুরে গ্রেফতারকৃতকে নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. মিল্টন হোসেনের আদালতে প্রেরণ করা হলে আসামী ১৬৪ধারা জবানবন্দিতে সে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। জবানবন্দী শেষে আসামী ইদ্রিস আলীকে জেলহাজতে প্রেরণ করেছে।

সোনারগাঁ থানায় দায়ের করা মামলার এজহারে ওই শিশুর মা উল্লেখ করেন, উপজেলার বারদী ইউনিয়নের আলগীর চর গ্রামে তার বাড়ি। স্বামী চট্টগ্রামে কাপড়ের ব্যবসা করেন। তিনি ৮বছর ও আড়াই বছরের দুই কন্যা সন্তান নিয়ে বসবাস করেন। অভিযুক্ত প্রতিবেশির স্ত্রী রূপঞ্জের একটি গার্মেন্টে চাকরি করেন। সে সুবাদে ধর্ষণ চেষ্টাকারী বাড়িতেই থাকে। ঘটনার দিন আড়াই বছরের কন্যা বাড়ির উঠানে খেলা করছিল। কৌশলে গ্রেফতারকৃত ইদ্রিস আলী তার ঘরে ডেকে নিয়ে দরজা বন্ধ করে ওই শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে ওই শিশুকে তার মা কোলে নিলে সে ব্যাথা অনুভব করছে বলে জানায়। পরে বিষয়টি ইদ্রিস আলীর কাছে জানতে চাইলে সে সে অসংলগ্ন কথা বলে।

এক পর্যায়ে ইদ্রিস আলী বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যায়। ঘটনার পর ওই শিশুকে সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়। এ ঘটনায় ওইদিন সন্ধ্যায় ওই শিশুর মা বাদী হয়ে ইদ্রিস আলীকে আসামী করে সোনারগাঁ থানায় মামলা দায়ের করেন। ঘটনার ২২দিন পর শুক্রবার রাতে আড়াইহাজার উপজেলার নোয়াকান্দি গ্রাম থেকে পুলিশ গ্রেফতার করে। গতকাল শনিবার দুপুরে গ্রেফতারকৃতকে নারায়ণগঞ্জ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃত আসামী ১৬৪ধারা জবানবন্দিতে সে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

সোনারগাঁ থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) তাহিদউল্লরাহ জানান, শিশু ধর্ষণকারীকে গ্রেফতারের পর নারায়ণগঞ্জ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like us on Facebook