মঙ্গল. এপ্রি ২০, ২০২১

দৈনিক আজকের বাংলাদেশ

সত্য প্রকাশে আপোষহীণ…

নারায়ণগঞ্জ পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খোরশেদ আলমের – ঈদ শুভেচ্ছা

আজকের বাংলাদেশ রির্পোট :-

নারায়ণগঞ্জ পুলিশের সবজান্তা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খোরশেদ আলম সকলকে পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। পুলিশই জনতা জনতাই পুলিশ। মাত্র ছয়টি অক্ষরে লিখা পুলিশ। যার সঙ্গা বিশ্লেষন করলে দেখা যায় p মানে pollite অর্থ – বিনয়ী,O- Obedient অর্থ অনুগত, L- loyalঅর্থ- বিশ্বস্ত, I- Intellegent অর্থ বুদ্ধমান,C- courageous অর্থ সাহসী, E- Efficient অর্থ দক্ষ। যার ছয়টি police শব্দের অর্থ এক সাথে মিলিয়ে পুরো অর্থ হলো বিনয়ী,অনুগত,বিশ্বস্ত,বুদ্ধিমান, সাহসী ও দক্ষ। এই সকল গুনাবলীর মধ্য দিয়ে দেশের জনগনের জানমাল নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত বাংলাদেশ পুলিশ। আর এসকল গুনে গুনাম্বিত এবং সব জান্তার অধিকারী নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খোরশেদ আলম। যিনি কখনো ভালোর বন্ধু সন্ত্রাসীর শত্রু মাদক ব্যবসায়ীদের যম। কখনো একজন গায়ক কখনো কবি কখনো বন্ধু আবার কখনো খেলার মাঠে হাসিমুখী খেলোয়ার। যিনি গত এক বছর দুই মাস পূর্ব থেকে বন্দর – সোনারগাঁ থানার দায়িত্ব পালন করে আসছেন। দুই থানার দায়িত্ব নেয়ার শুরু থেকেই সন্ত্রাসী,চুরি,ডাকাতি চাঁদাবাজ,ভূমিদস্যু, ইভটিজিং,বাল্য বিবাহ সহ মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়েছেন। সমাজের সচেতন নাগরিক আর জনপ্রতিনিধিদের সহায়তায় নির্মূল করতে সক্ষম হয়েছেন এসকল অপকর্ম। একসময় চিটাগাংরোড থেকে মেঘনা পর্যন্ত ডাকাত আর মলম পার্টির রমরমা দৌড়াত্ব ছিল। প্রতিনিয়তই যাত্রীবেশে গাড়িতে ডাকাতি হত। ডাকাত আর মলম পার্টির নিকট নিরীহ যাত্রীদের সহায় সম্বল হারাতে হত । তার দক্ষতায় আজ নির্মূল হয়েছে ডাকাতি আর মলম পার্টির দৌড়াত্ব। এ সকল অর্জনের সাথে পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ মহোদয়ের রয়েছে একান্ত সহযোগীতা। যার সহযোগীতার একমাত্র শ্লোগান মাদক ছেড়ে কলম ধর, নেশা ছেড়ে খেলা কর। যে কারনে মাদকের কড়াল গ্রাস থেকে রক্ষা করতে উঠতি বয়সী ছেলে মেয়েদের নিয়ে উপজেলা ভিত্তিক জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে পুলিশ প্রশাসন ফুটবল,ক্রিকেট খেলার আয়োজন করেন। এক সময় বন্দর মদনপুর এলাকা মাদক আর ত্রাসের রাজত্ব ছিল। যেখানে ইস্ট টাউন নামে পরিচিত অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(খ)সার্কেল খোরশেদ আলমের অফিস। এক সময় এই ইস্ট টাউনে বাড়ি করতে সন্ত্রাসী চাঁদাবাজদের লক্ষ লক্ষ টাকা চাঁদা দিতে হত। ছিল মাদক ব্যবসায়ী আর জুয়াড়িদের আড্ডাখানা। এখন আর সেই চাঁদাবাজ জুয়াড়ি মাদক ব্যবসায়ী নেই। সবজান্তা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খোরশেদ আলম নিজেও একজন ক্রিড়া মনের মানুষ। কাজের ফাকে কখনো স্কুল পড়ুয়া শিক্ষার্থী কখনো এলাকার তরুন যুবকদের নিয়ে ক্রিকেট কিংবা বল নিয়ে মাঠে নেমে যান। খেলার আনন্দের মাঝে যুব সমাজকে মাদক থেকে দূরে নিয়ে আসেন। কখনো নিজের টাকা ব্যয় করে উঠতি বয়সী তরুনদের ব্যাট বল কিনে দেন। আবার কখনো সন্ত্রাসী চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে কঠোরতা মনোভাব প্রয়োগ করেন। তার ঐকান্তিক মনোভাব আর কঠোরতার কারনে মদনপুর এলাকা আজ শান্ত। ব্যবসায়ীরা নির্বিঘ্নে ব্যবসা পরিচালনা করে যাচ্ছে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খোরশেদ আলমের সর্বগুনের কথা এলাকার জনগনের নিকট আমাদের প্রতিনিধি জানতে পারে। নিজ কর্ম দক্ষতার গুনে নারায়নগঞ্জ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খোরশেদ আলন একজন একনিষ্ঠ পুলিশ অফিসার। যিনি জনগনের জানমাল নিরাপত্তায় বুঝতে ও জানতে পারেন কি প্রদক্ষেপ নেয়া যায়। তবে এ বিষয়ে নারায়নগঞ্জের সবজান্তা অতিরিক্ত খোরশেদ আলম মহোদয়ের নিকট জানতে চাইলে তিনি কিছু না বলে শুধু জনতার উদ্দেশ্য পবিত্র ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Like us on Facebook